Take a fresh look at your lifestyle.

স্বামী স্ত্রী কতটা বেহায়া হলে বাচ্চার সামনে এইধরনের কাজ করতে পারে ? (দেখুন ভিডিওতে ক্লিক করে )

0

স্বামী স্ত্রী কতটা বেহায়া হলে বাচ্চার সামনে এইধরনের কাজ করতে পারে ? (দেখুন ভিডিওতে ক্লিক করে )

ভিডিওটি দেখতে একটু নিচে চলে যান…

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর ।

এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা।
ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে।

প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

মেয়েদের এই একটা জিনিসের জন্য সব ছেলেরা পাগল! কি সেই জিনিস জানেন?
ভার্জিন মেয়ে চেনার জন্য সাধারণত তেমন কোন লক্ষণ নেই। তবে মেয়েদের যোনী এবং স্তন দেখে মোটামুটি ভার্জিন মেয়ে চেনা যায়। তবে অনেক মেয়ের বংশগতভাবেই স্তন বড় থাকে। এমনও ঘটনা দেখা গেছে যে, একটি মেয়ের স্তন বেশ বড়, কিন্তু কোন ছেলেকে কিস করা তো দূরের কথা, কখনো হস্তমৈথুন এবং সেক্স পর্যন্ত করেনি।এই মেয়ে লাইভে এসে যা করল,রাতে এই ভিডিও দেখলে নিজেকে সামলে রাখা কঠিন!দেখুন।এই মেয়ে লাইভে এসে যা করল,রাতে এই ভিডিও দেখলে নিজেকে সামলে রাখা কঠিন!দেখুন।

সর্বনাশ করেছে? এটা কি দেখলাম? মিস করবেন না সর্বনাশ করেছে? এটা কি দেখলাম? মিস করবেন না সর্বনাশ করেছে? এটা কি দেখলাম? মিস করবেন না সর্বনাশ করেছে?

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

>>>>>>বোন উঠে যাহ তোকে আমি সাজিয়ে দিবো আজ >>>>>>

___মধ্যবিত্ত পরিবারের দুইটা মেয়ে তাদের কনো ভাই নাই বড়বোন এর নাম নুসরাত ছোটবোন এর নাম জেরিন। তাদের বাবা প্রবাসে থাকে মা,বাবা দুই মেয়েকে খুব ভালোবাসে। কিন্তু বড়মেয়ে তার ছোটবোন কে একদম দেখতে পারে না জেরিনকে।জেরিন এর কথা শুনলে নুসরাত রাগ করে কারণ জেরিন একটু পাকনা পাকনা কথা বলে তাই। নুসরাত পাকনা কথা সহ্য করতে পারেনা,জেরিন নুসরাত থেকে অনেকছোট বয়সে।

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

বাবা নুসরাত এর জন্য প্রবাস থেকে সাজুগজু আইটেম দিছে।আর জেরিন এর জন্য চকলেট কিন্তু জেরিন বোনের গুলো দরকার সেও সাজুগজু করবে।জেরিন তার বড়বোনকে বলে?আপু তুই আমাকে একটু সুন্দর করে বউ সাজিয়ে দেয়?নুসরাত বলে যা এখান থেকে বাবা

মানুষ ভ্রমন পিপাসু। ভ্রমনে তৃপ্তি পেতে সে দুনিয়া ঘুরে বেড়ায়। সব দেশেই সে সমান তৃপ্তি পাবে তা নয়। কিছু কিছু দেশে টুরিস্টরা যায়ই শুধুমাত্র যৌন চাহিদা মেটাতে। এখানে বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় মেয়েদের পাওয়া যায়। বেছে নিতে পারবে যে কাউকে কোন ঝামেলা ছাড়াই।

ভিডিওটি পোষ্টের নিচে দেয়া আছে। ভিডিওটি দেখতে স্ক্রল করে পোষ্টের নিচে চলে যান।

“পৃথিবীর যে দেশ গুলোতে মানুষ শুধু সেক্স করার জন্য যায় ।
পৃথিবীর যে দেশ গুলোতে মানুষ শুধু সেক্স করার জন্য যায় ।
১. কিউবাঃ নিসর্গ, সংস্কৃতি ও চুরুটের স্বর্গরাজ্য খ্যাত দ্বীপরাষ্ট্র কিউবায় প্রতিবছর পাড়ি জমান অজস্র পর্যটক। তবে এদের বড় একটি অংশ আসেন যৌনতার আকর্ষণে। শুধু প্রাপ্তবয়স্ক নয়, মনপছন্দ নাবালক যৌনসঙ্গী সুলভে মেলে এই দেশে।

২. রাশিয়াঃ গত এক দশকে রাশিয়ায় দেহব্যবসার রমরমা শুরু হয়েছে। মূলত উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের অন্যান্য দেশের পর্যটকরাই এখানে যৌনতার টানে ছুটে আসেন। তবে রুশ যৌন বাজারে দালালদের দাপট বেশি। তাই, দালাল থেকে সাবধান থাকাটা খুব দরকার৷

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

৩. আর্জেন্টিনাঃ ১৮৮৭ সাল থেকে এ দেশে বৈধতা পেয়েছে সমকামিতা। এই কারণে আর্জেন্টিনায় সমকামী দেহব্যবসায়ীদের চাহিদা তুঙ্গে। সরকারের পক্ষ থেকেও সমকামী পর্যটকদের আকর্ষণ করতে নানা উদ্যেগ নেওয়া হয়েছে। যৌন পর্যটনের হাত ধরেই অর্থনীতি চাঙ্গা করতে চাইছে মারাডোনার দেশ।

৪. বুলগেরিয়াঃ যৌন পর্যটনের পীঠস্থান সানি বিচ রিসোর্ট ঘিরে তৈরি হয়েছে বাস্তব ও কল্পনার অভাবনীয় মিশেল। শোনা যায়, এই সৈকতে প্রতিদিন কয়েক হাজার দেহব্যবসায়ী ভিড় জমান। তাঁদের অনেকেই আসেন প্রতিবেশী দেশ থেকেও।

করছেন তো রোজ! এবার থেকে সকালে এই ১০ বদঅভ্যাস এড়ান
রোজ সকালে আমরা ঘুম থেকে উঠি নতুন আশা, নতুন উদ্যম নিয়ে। প্রত্যেকটাদিন আমাদের কাছে একটা নতুন শুরু। তাই সকালটা আমাদের সবার কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। খেয়াল রাখবেন নিজেদেরই ছোটখাটো ভুলে একটা সুন্দর সকাল যেন নষ্ট না হয়ে যায়।

জানেন কি, আমরা প্রায় সবাই রোজ সকালে নিজেদের জীবনে কয়েকটা বাস্তুদোষ ঘটিয়ে ফেলি। তার অশুভ প্রভাব আমাদের জীবনে পড়ে। খেয়াল রাখুন অজান্তে করা এই সব বাস্তুদোষের। জেনে নিন সমাধান।

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

১. দিনের শুরু কখনোই মোবাইলে মেসেজ চেক করে করবেন না। আমরা অনেকেই ঘুম থেকে উঠে প্রথমেই মোবাইলে মেসেজ চেক করি। কিন্তু একটা খারাপ জোক, একটা নেগেটিভ কমেন্ট আমাদের গোটা দিনটা শেষ করে দিতে পারে। দিনের শুরুতে কিছুটা সময় মেডিটেশন করুন। নিজের সঙ্গে একটু কথা বলুন।

২. যে পোশাক পরতে ভালো লাগে না, তা জোর করে পরার কোনও প্রয়োজন নেই। অপছন্দের পোশাক পরলে সারাদিনটাই খুঁতখুঁতে লাগে। সেটাই পরুন, যেটা আপনার পরতে ভালো লাগে।

৩. ফাটা মগে কখনোই কফি খাবেন না। যতই দামি হোক না কেন, চায়ের কাপ বা কফির মগে ক্র্যাক ধরলে তা তখনই ফেলে দিন।

৪. আপনার ব্যাগে থাকা প্রত্যেকটি জিনিসেই কিছু পরিমাণ ধুলো থাকে। এমনকি ছয় মাস ধরে আপনার ব্যাগে পড়ে থাকা একটা সেফটিপিনেও ধুলো জমে থাকে। তাই অপ্রয়োজনীয় জিনিস ব্যগ থেকে ফেলুন। তাহলেই পজিটিভ এনার্জি ঠিকমতো কাজ করতে পারবে।

৫. বাড়ির বাইরে যেখানেই যান না কেন, সঙ্গে অবশ্যই সব সময় জলের বোতল রাখবেন। প্রত্যেকটি জিনিসেরই নিজস্ব কিছু গুনাগুণ থাকে। সঙ্গে জল থাকলে তা আপনাকে ঠাণ্ড ও শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

৬. সকালে যতই তাড়াহুড়ো থাক না কেন, খালি পেটে কখনোই বাড়ি থেকে বেরোবেন না। ভাবুনতো গাড়িতে পেট্রোল না থাকলে তা কি চলবে? তেমনই খালি পেটে কোনও কাজই আপনি ভালো ভাবে করতে পারবেন না।

৭. কোনও দিন সকালে আপনার সন্তান বা বাড়ির অন্য কোনও বাচ্চাকে বকাবকি বা মারধর করে ঘুম থেকে তুলবেন না। ভাবুনতো আপনাকে যদি গান পয়েন্টে অফিস যেতে হয়? নিজেকে বাচ্চার জায়গায় বসিয়ে দেখুন। এর ফলে বাচ্চার থেকে বেরনো নেগেটিভ এনার্জি আপনার দিনটাই শেষ করে দেবে।৮. গাড়িতে যদি ধুলো-ময়লা থাকে, তা শুধু আপনার ইমেজ খারাপ করবে না, পাশাপাশি বাস্তুমতেও নোংরা গাড়ি চালানো অত্যন্ত অশুভ। ফ্রন্ট ও সাইড গ্লাসের ধুলো পরিস্কার করতে ৩ মিনিটের বেশি সময় লাগবে না।

৯. গতকাল অফিসে ঝামেলা হয়েছে? তার রেশ টেনে আজও গোমড়া মুখে অফিসে ঢুকবেন না। কাল যা হয়েছে, ভুলে যান। প্রতিদিন একটা নতুন শুরু। কাজের ক্ষেত্রে নিজের পেশাদারিত্ব বজায় রাখুন।

১০. সকাল বেলা প্লেটে খাবার ফেলে উঠে যাওয়া বাস্তুমতে অত্যন্ত অশুভ। মনে রাখুন আমাদের দেশে বেশিরভাগ মানুষই প্রতিদিন পেট ভরে খেতে পান না। খাবার নষ্ট করার আগে তাঁদের কথা মনে করুন।

তোর জন্য চকলেট দিছে সেগুলো বসে বসে সেগুলো খা।

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

কিন্তু জেরিন পিচ্চি কি আর বু্ঝে সে কি করে নিজে নিজে বউ সাজতে গিয়ে নুসরাত এর সব জিনিশ গু্লো নষ্ট করছে।এগুলো দেখে নুসরাত মাথা গরম দিলো ঠাস!ঠাস! কয় একটা থাপ্পড়,জেরিন কান্না করতে করতে মায়ের কাছে চলে গেলো মা বলে? তুই তাকে মারলি কেনো সে কি বুঝে?নুসরাত বলে সে সব বুঝে দেখো না পাকনা পাকনা কথা বলে।

___সকাল বেলায় নুসরাত স্কুলে যাবে, তার কলম একটাও খুঁজে পেতেছেনা। কি করে পাবে কলমতো নষ্ট করে ফেলছে জেরিন এ। তখনও নুসরাত অনেককথা বলে তাকে, চলে গেলো স্কুলে।
স্কুল ছুটি শেষে নুসরাত এর দুইটা বান্ধবী সাথে আসে তার বাড়িত।জেরিন তাদের দেখে পাকনা পাকনা কথা বলা শুরু করে। নুসরাত বলে?যা এখান থেকে না হয় আম্মুকে ডাকবো বান্ধবীরা বলে?আরে থাকনা তোর বোনটা মিষ্টি কথা বলে দেখবি বড় হলে অনেক চালাক হবে।নুসরাত বান্ধবীদের জন্য নাস্তা আনতে গেছে, এদিকে নুসরাত এর বান্ধবীরা বলে? জেরিন তোমার প্রিয় বন্ধু কে?জেরিন বলে আমার কিউট আপু নুসরাত আমি তার সাথে সবসময় ঝগড়া করি তার কলম দিয়ে মজা করে লেখি, তার লিপস্টিক আমি দিতে পারি তার সব সাজুগজু আইটেম আমি চুরি করে করে দিতে পারি, তাই আমার প্রিয় বন্ধু আমার আপুনি নুসরাত।

ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন

নুসরাত এর বান্ধবীরা শুনে হাসতেছে আর বলে কি পাকনা মেয়েরে বা।বান্ধবীরা চলে গেলো জেরিনকে উপহার স্বরপ তাদের কলম দিয়ে যায়।
নুসরাত মনে করে বান্ধবীদের ব্যাগ থেকে চুরি করে কলম নিয়ে নিছে তাই অনেক কথা বলছে জেরিনকে।কিন্তু সে কলম তার বান্ধবীরা তাকে জেরিনকে উপহার দিছে কিন্তু নুসরাত কখনো জেরিন এর কথা বিশ্বাস করে না। সবসময় একটা না একটা নিয়ে ছোটবোনের সাথে ঝগড়া করে নুসরাত

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর । এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা। ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.